Bengali Essay on "Prize giving ceremony at School", "পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান রচনা" for Class 5, 6, 7, 8, 9 & 10

Admin
0
Essay on Prize giving ceremony at School in Bengali Language: In this article, we are providing পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান রচনা for students. Bengali Essay on Prize giving ceremony at School.

Bengali Essay on "Prize giving ceremony at School", "পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান রচনা" for Class 5, 6, 7, 8, 9 & 10

স্কুলকে উন্নতর করে তােলার জন্য পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান খুবই অপরিহার্য। এটি বছরে মাত্র একবার হয়। এটি ছাত্রদের মধ্যে নূতন কিছু করার ইচ্ছাকে প্রবল করে তােলে। এই অনুষ্ঠানটি সত্যিই রােমাঞ্চকর।
এই বছর পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে পুরাে ঘর পরিপূর্ণ ছিল, ছাত্রদের বাবা-মা এবং আমন্ত্রিত ব্যক্তিগণ সকলেই অংশ গ্রহণ করেছিলেন। এ বছর ২৫শে জানুয়ারী পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানটি সম্পন্ন হয়েছিল। প্রধান অতিথির আসন অলঙ্কৃত করেছিলেন শিক্ষা পরিচালক। মাসের প্রথম থেকেই এই অনুষ্ঠানের জন্য গােছগাছ শুরু করা হয়েছিল। স্কুল রং করা হয়েছিল। যে, ঘরটিতে অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করা হয়েছিল সেটিকে খুব সুন্দর ভাবে সাজানাে হয়েছিল। নির্দিষ্ট দিনে মঞ্চের উপর একটি সুন্দর টেবিল ও কিছু চেয়ার রাখা হয়েছিল। বাচ্চাদের বসার জন্য কার্পেট বিছিয়ে দেওয়া হয়েছিল এবং ঘরের অবশিষ্ট অংশে চেয়ার দেওয়া হয়েছিল। প্রথম সারিতে শিক্ষকগণ এবং নিমন্ত্রিত ব্যক্তিগণ বসেছিলেন। অনুষ্ঠান শুরু হওয়ার কথা ছিল বেলা ৪টের সময়, তাই বেলা ৩টে ৪৫ মিনিট এই ঘরটিতে দর্শক পরিপূর্ণ হয়ে গেছিল। ছাত্ররা যে ব্যবস্থা করেছিল তা দেখে দর্শতগণ খুবই খুশী হয়েছিলেন। ঘরের এক কোণায় একটা টেবিল রেখে তার উপর সমস্ত পুরস্কারগুলি সাজিয়ে রাখা হয়েছিল। তখন সকলেই প্রধান অতিথির জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছিলেন।
একেবারে সঠিক সময়ে প্রধান অতিথি তার গাড়ী করে উপনীত হয়েছিলেন। স্কুলের প্রধান শিক্ষক এবং উচ্চপদস্থ কর্মচারীগণ তাকে উষ্ণ অভ্যর্থনা জানিয়েছিলেন। তিনি ঘরে প্রবেশ করার সাথে সাথেই তাকে সম্মান দান করার জন্য বাজনা বাজানাে হয়েছিল। সমস্ত ছাত্র এবং অন্যান্য দর্শকগণ তাঁকে সম্মান জানাতে উঠে দাঁড়িয়েছিল। স্কুলের প্রধান শিক্ষক এবং অন্যান্য উচ্চপদস্থ কর্মচারীগণ তাঁকে মালা পরিয়ে বরণ করে নিয়েছিলেন। প্রধান অতিথি তার চেয়ারে উপবেশন করার পর, সম্পূর্ণ ঘরটি জুড়ে এক নিস্তব্ধতা বিরাজ করছিল।
আমাদের প্রধান শিক্ষক প্রধান অতিথির জীবন সম্পর্কে বিস্তারিত বর্ণনার মধ্যে দিয়ে এই নিস্তব্ধতাকে ভাঙতে সক্ষম হয়েছিলেন। তারপর, তিনি স্কুলের বাৎসরিক ফলাফল সম্পর্কে জানান এবং সেই সাথে স্কুলের সফলতা সম্পর্কেও জানাতে ভােলেন নি। একই সাথে উনি প্রধান অতিথির কাছ থেকে বাৎসরিক সংস্কৃতিক অনুষ্ঠান শুরু করার অনুমতি চেয়েছিলেন। প্রধান শিক্ষক লিটারারি ক্লাবের প্রেসিডেন্টকে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান শুরু করার জন্য নির্দেশ দেন। কিছু ছাত্র খুব সুন্দর একটি গানের মাধ্যমে অনুষ্ঠান শুরু করে। ছয়জন মিলে রাজা এবং কাঠুরে’ নামক একাঙ্ক নাটক করে, অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারীরা দর্শকবৃন্দের কাছ থেকে সহস্র করতালি লাভ করেছিল। যে সমস্ত ছাত্ররা নাটকে অংশগ্রহণ করেছিল তারা প্রকৃতই নিজেদের দক্ষতা প্রদর্শনে সক্ষম হয়েছিল। কারণ তারা খুব সুন্দরভাবে নিজেদের তৈরী করতে সক্ষম হয়েছিল। লােকনৃত্য এই অনুষ্ঠানের আরও বেশী শ্ৰীবৃদ্ধি করতে পেরেছিল।
অনুষ্ঠানের শেষে পুরস্কার প্রাপকদের হাতে পুরস্কার তুলে দিয়েছিলেন প্রধান অতিথি, এবং তিনি সকলের সাথে করমর্দন করেন। তারপর তিনি অনুষ্ঠান সম্পর্কে একটি ছােট্ট বক্তৃতা দান করেন ও অংশগ্রহণকারীদের উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করে তাদের অদম্য ইচ্ছাকে আরও বৃদ্ধি করার চেষ্টা করেন। সম্পূর্ণ অনুষ্ঠান পরিচালনার সময় বিদ্যার্থীরা যে নিয়মানুবর্তিতার প্রদর্শন করেছিল, তিনি তারও প্রশংসা করেন। তারপর প্রধান শিক্ষক উঠে তার এই অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করার জন্য তাকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।
শেষ পর্যন্ত অনুষ্ঠান একেবারে শেষে উপনীত হয় এবং জাতীয় সঙ্গীতের মাধ্যমে তার সমাপ্তিকে সূচিত করা হয়। প্রধান শিক্ষক পরের দিন ছুটি ঘােষণা করে দিয়েছিলেন।

Post a Comment

0Comments
Post a Comment (0)

#buttons=(Accept !) #days=(20)

Our website uses cookies to enhance your experience. Learn More
Accept !