Bengali Essay on "Republic Day", "Gantantra Diwas", "গণতন্ত্র দিবস বাংলা রচনা" for Class 5, 6, 7, 8, 9 & 10

Admin
0
Essay on Republic Day in Bengali Language: In this article, we are providing গণতন্ত্র দিবস বাংলা রচনা 26 January for students. Bengali Essay on Gantantra Diwas.

Bengali Essay on "Republic Day", "Gantantra Diwas", "গণতন্ত্র দিবস বাংলা রচনা" for Class 5, 6, 7, 8, 9 & 10

আমাদের দেশের ইতিহাসে ২৬শে জানুয়ারীকে একটা উজ্জ্বল দিন হিসাবে চিহ্নিত করা হয়। এই দিন আমাদের নিজেদের সংবিধান সৃষ্টি হয়েছিল এবং আমাদের দেশ ধর্মীয় ও সামাজিক উভয় দিক থেকেই গণতান্ত্রিক দেশ বলে আখ্যায়িত হয়েছিল। এই দিনটি আমাদেরকে কংগ্রেস পার্টীর সেই ঐতিহাসিক অঙ্গীকার এবং বৈদেশিক নিয়মের হাত থেকে নিষ্কৃতি পেয়ে মুক্তির স্বাদকে মনে করিয়ে দেয়।
এই দিনটি সাদরে পালন করার জন্য প্রায় এক মাস আগে থেকেই ব্যবস্থাপনা শুরু করা হয়। ইণ্ডিয়া গেটের আশেপাশে প্রসারিত বিস্তৃর্ণ মাঠে বসার বন্দোবস্ত করা হয়। এখানে খ্যাতিনামা ব্যক্তিদের এবং সাধারণ মানুষ উভয়ের জন্যই বসার বন্দোবস্ত করা হয়। শহরের বিভিন্ন এলাকাতেই টিকিট পাওয়া যায়।
প্রত্যেক সেনাবাহিনীর সেনারাই প্যারেডে অংশগ্রহণ করে। এমনকি ভারতীয় নৌসেনারা ও ভারতীয় বায়ু সেনারা তাদের বিভিন্ন রকম কৌশল প্রদর্শন করেন। দেশ স্বগৌরবে তার বন্দুক, টাঙ্ক, জাহাজ এবং যুদ্ধের প্লেনগুলির প্রদর্শন করে। খুব ভাের থেকেই অনুষ্ঠান শুরু হয়ে যায়। প্রধানমন্ত্রী দেশের অমর সৈন্যদের নামে মালা দান করেন। যে সমস্ত সৈন্যরা বিভিন্ন রকম যুদ্ধের হাত থেকে দেশকে রক্ষা করেছে এবং নিজেদের জীবনকে তুচ্ছ জ্ঞান করেছে তাদেরপ্রতি প্রধানমন্ত্রী শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন। ঠিক সকাল আটটার সময় রাষ্ট্রপতি রাজপথে এসে উপস্থিত হন, প্রধানমন্ত্রী এবং প্রতিরক্ষা মন্ত্রী তাঁকে আমন্ত্রণ জানান। সৈন্যবাহিনীর প্রধান নির্দেশক হলেন রাষ্ট্রপতি।
গত, যুদ্ধগুলির নায়কেরাই প্যারেড শুরু করেন। যে সমস্ত সৈন্যরা • পরম বীর চক্র পান তারাই প্যারেডে নেতৃত্ব দান করেন। এর পর যে সমস্ত ছেলে মেয়েরা গৌরবজনক সম্মানের অধিকারী হয়েছে তারা উপস্থিত হয়।
সৈন্যরা ব্যান্ডের তালে তাল মিলিয়ে প্যারেড করে থাকে। রাষ্ট্রপতির সামনে দিয়ে যাওয়ার সময় তারা রাষ্ট্রপতির দিকে মাথা ঘুরিয়ে তাঁকে সেলাম জানিয়ে সম্মান জ্ঞাপন করে। প্যারেডের নির্দেশকও প্যারেড করতে করতে সেলাম জানান। আধা সামরিক বাহিনীর সৈন্যরাও প্যারেডে অংশগ্রহণ করে থাকেন।
একেবারে শেষে বিভিন্ন রাজ্য থেকে ঝানকি’ আসে এবং তার মাধ্যমে এই রাজ্যের মানুষদের জীবন যাত্রা প্রদর্শিত করে। সাংস্কৃতিক দলগুলি লােনৃত্য প্রদর্শন করে। সবশেষে দিল্লীর বিভিন্ন স্কুল থেকে ছাত্র ছাত্রীরা আসে এবং তারা নৃত্য গীত এবং বিভিন্ন কলা কৌশলের দ্বারা খুব সুন্দর দৃশ্যের উপস্থাপনা করে থাকে। দূরদর্শনের মাধ্যমে সম্পূর্ণ অনুষ্ঠানটি সম্প্রচারিত করা হয়। ২৮শে জানুয়ারি প্রত্যাবর্তনের পালা। সৈন্যরা তাদের শিবিরে পৌছাবার আগে প্রতি বছর আমাদের সৈন্য বাহিনী এই দিনটিতে আমাদের সামনে অপূর্ব দৃশ্যের অবতারণা করে থাকে।

Post a Comment

0Comments
Post a Comment (0)

#buttons=(Accept !) #days=(20)

Our website uses cookies to enhance your experience. Learn More
Accept !