Bengali Essay on "A Visit to Fair", "Mela", "আমার প্রিয় বন্ধু বাংলা অনুচ্ছেদ রচনা" for Class 5, 6, 7, 8, 9 & 10

Admin
0
A Visit to Fair Essay in Bengali: In this article, we are providing আমার দেখা একটি মেলা  বাংলা অনুচ্ছেদ রচনা for students. Essay on Mela in Bengali.

Bengali Essay on "A Visit to Fair", "Mela", "আমার প্রিয় বন্ধু বাংলা অনুচ্ছেদ রচনা" for Class 5, 6, 7, 8, 9 & 10

প্রতি বছর আমাদের গ্রামের কাছেই একটা মেলা বসে। এই মেলায় বিভিন্ন প্রজাতির গবাদি পশু দেখা যায়। এখানে সম্পূর্ণ পাঞ্জাবের গবাদি পশুদের দেখানাে হয়। পাঞ্জাবের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে পশুদের মালিকেরা তাদের পশু নিয়ে এই মেলায় উপস্থিত হয়। প্রচণ্ড যত্ন করে লালনপালন করা পশুগুলিকেই এই মেলায় নিয়ে আসা হয়। বিভিন্ন প্রজাতির গবাদি পশু দেখার জন্য এখানে প্রচুর মানুষের ভীড় হয়। গরু, মহিষ, ষাঁড়, বলদ এবং অন্যান্য প্রজাতির পশুকে এই মেলায় নিয়ে আসে তাদের প্রভুরা।
অন্যান্য রাজ্য এবং গ্রাম থেকেও মানুষেরা এই মেলার আকর্ষণে এখানে ছুটে আসে। এখানে উপস্থিত বিভিন্ন বিষয়ে মানুষদের আকর্ষণের কেন্দ্র বিন্দুতে পরিণত হয়। ওখানে উপস্থিত হওয়ার পর বিভিন্ন ধরনের জিনিস আমার দৃষ্টি আকর্ষণ করেছিল। প্রথমেই আমার চোখ একটা বাজারের উপর আটকে গেছিল, একজন দোকানদার নিত্য প্রয়ােজনীয় কিছু দ্রব্য বিক্রি করছিল। এক কোণায় একটি জাদুকর বসেছিল। জাদুকরটি বিভিন্ন রকম কৌশল দেখিয়ে মানুষদের আকর্ষণ করার চেষ্টা করছিল। তার কৌশলগুলি ছিল প্রকৃত প্রশংসনীয়। তার চালচলন সত্যিই বিস্ময়ের সৃষ্টি করেছিল। একটা সময় সে একটা বাচ্চা ছেলের পেট কেটে দেয়, এটা দেখে দর্শকগণ বিস্মিত এবং হতভম্ব হয়ে গেছিল।
তারপর আমি সেখান থেকে সরে একটা নাগর দোলার সামনে গিয়ে উপস্থিত হই। অনেক ছেলে, মেয়ে ও পুরুষ এবং মহিলা খুব আনন্দের সহিত সেই নাগর দোলা চাপছিল। এই নাগরদোলার সামনে বহু লােক ভীড় করে দাঁড়িয়েছিল।
অন্য আর একদিকে মল্ল যুদ্ধের ব্যবস্থা করা হয়েছিল। বিখ্যাত মল্ল যােদ্ধারা সেই অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণের জন্য সেখানে এসে উপস্থিত হয়েছিল। তাদের এই মল্লযুদ্ধ ছিল খুবই আকর্ষণীয় দৃশ্য ছিল। আমি কিছুক্ষণ সেখানে দাঁড়িয়ে এই দৃশ্য দেখার পর অন্যদিকে চলে গেছিলাম।
খানিকটা দূরেই আমি একদল মানুষকে দেখতে পাই। সেখানে গিয়ে দেখি একদল মানুষ একটা সাপুড়েকে ঘিরে দাঁড়িয়ে আছে। সাপুড়েটি একটা বীন বাজাচ্ছিল। তার বীন থেকে একটা সন্দর সুর নির্গত হচ্ছিল। তার বীনের সুরে একটা সাপ নাচ করছিল। বীণ থেকে নির্গত মিষ্টি সুরটি সাপটিকে সম্পূর্ণ সম্মােহিত করে তুলেছিল। এই আনন্দকর দৃশ্যটি প্রতিটি মানুষকে যথেষ্ট আনন্দদান করেছিল।
এটি একটি বড় ধরনের মেলা। বহু মানুষ গবাদি পশু কিনতে বা বিক্রী করতে আসেন, তাদের মধ্যে অনেকে বেশ ভালাে দামও পান। অনেক কৃষক উন্নত ধরনের চাষাবাদের জন্য ষাঁড় ক্রয় করে। এই গবাদি পশুগুলিকে সুন্দরভাবে সাজানাে থাকে। মেলায় ঘুরতে আসা প্রতিটি মানুষই কিছু না কিছু কিনে নিয়ে যায়। অনেক দরিদ্র, খোঁড়া, অন্ধ এবং প্রতিবন্ধী মানুষ এখানে ভিক্ষা করে। অনেকেই দয়া বশত তাদের দু-এক টাকা দান করে থাকে। অনেক সাধুরাও এই মেলায় আসে। তারা বিভিন্ন রকম মন্ত্র আওড়ায় এবং ধর্মীয় কথা বলেন। অনেকে আবার বেশী দীর্ঘ আলােচনাও করে। ধার্মিক মানুষেরা তাদের কাছে গিয়ে ভিড় করে এবং খুব মন দিয়ে বিভিন্ন রকম ধর্মীয় কথাবার্তা শােনে।
আমি এই মেলাটি খুবই উপভােগ করেছিলাম। এই মেলা দেখার পর এর প্রতি আমার গভীর আসক্তি জন্মেছিল। আমি সেখানে মানবিকতার এক বিশাল নিদর্শন দেখতে পেয়েছিলাম। সন্ধ্যার সময় মেলা ভাঙতে শুরু করে। প্রায় সম্পূর্ণ মেলা ভেঙে যাওয়ার পর আমি ধীরে ধীরে বাড়ির দিকে রওনা দিয়েছিলাম। আমি খুব ক্লান্তি অনুভব করলেও মনে মনে বেশ আনন্দও উপভােগ করছিলাম।

Post a Comment

0Comments
Post a Comment (0)

#buttons=(Accept !) #days=(20)

Our website uses cookies to enhance your experience. Learn More
Accept !