Bengali Essay on "Reading habits", "বই পড়ার অভ্যাস রচনা" for Class 5, 6, 7, 8, 9 & 10

Admin
0
Essay on Reading habits in Bengali Language: In this article, we are providing বই পড়ার অভ্যাস রচনা for students. Bengali Essay on Reading habits.

Bengali Essay on "Reading habits", "বই পড়ার অভ্যাস রচনা" for Class 5, 6, 7, 8, 9 & 10

জ্ঞানের কোন সীমা নেই। আমরা অনেক জ্ঞান আরােহন করা সত্ত্বেও তৃপ্তি লাভ করতে পারি না যতক্ষণ আমরা তা নিরীক্ষণ করার সুযােগ পাই। মানুষের অভিব্যক্তি এবং তথ্য প্রদানের সাহায্যে পড়ার বইগুলি আমাদের অনেক জ্ঞান প্রদান করে থাকে। দুর্ভাগ্যবশত, ভারতীয়দের মধ্যে পড়ার অভ্যাস দেখা যায় না। এই কারণে ভারতে প্রতিবছর যে বইগুলি প্রকাশিত হয় তার মধ্যে সত্তর শতাংশই পড়ার বই কিন্তু পশ্চিমী দেশগুলিতে এর হার ত্রিশ শতাংশের বেশী নয়।
একদা, বিখ্যাত ভারতীয় লেখন মুলক রাজ আনন্দকে ভারতীয়দের পড়ার অভ্যাস কম হওয়ার কারণ সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করা হয়েছিল। তিনি বলেছিলেন যে, লােকের মুখে শুনেই ভারতবাসীরা জ্ঞান আরােহন করে থাকেন এবং এটি বংশানুক্রমে চলে আসছে। পশ্চিমী শিক্ষা সরকারিভাবে ঘােষণা করেছিল যে, যে সমস্ত ব্যক্তিরা। পড়ে শেখেন তারা জ্ঞানের দিক থেকে পিছিয়ে থাকেন।
এমন কি বর্তমান যুগের আধুনিক শিক্ষার যুগেও ছাত্রদের জ্ঞান নেট মেমােরি’, শিক্ষকদের বক্তৃতা এবং পুনর উৎপাদনের উপর নির্ভর করে। ছাত্ররা প্রচুর জ্ঞান অর্জন করবে, এটাই আশা করা হয়ে থাকে। এই প্রক্রিয়ার মাধ্যমে ছাত্রদের মধ্যে একটা ভাসা ভাসা জ্ঞানের প্রভাব সৃষ্টি হয়, যার ফলে নিজের মধ্যে পড়ার প্রেরণা নষ্ট হয়।

সাধারণত পড়ার অভ্যাস তিনটি বিষয়ের উপর নির্ভর করে – শিক্ষা, পুস্তক বিবরণী এবং গ্রন্থাগার। প্রথম বিষয়টি শিক্ষা দানের সাথে সম্পর্কিত এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত শিক্ষা দানের বিষয়টি বর্তমানে ব্যবসায় পরিণত হয়েছে, মূল লক্ষ্যে উপনীত হওয়ার পরিবর্তে কম সময়ে বেশী প্রাপ্তির বিষয়টিকেই সকলে বেশী প্রাধান্য দিয়ে থাকেন। এই কারণে পরীক্ষার জন্য তৈরি হওয়ার সময় বিদ্যার্থীগণ একটি উন্নতমানের বইয়ের তুলনায় সস্তা দামের অনুন্নত বই গুলিকেই বেশী গুরুত্ব দিয়ে থাকে। বিদ্যার্থীদের জীবনের পথ তৈরি করা জন্য আত্ম সংশােধন এবং আত্ম উন্নতির প্রয়ােজন, এই পথ প্রস্তুতিতেও শিক্ষা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আত্ম উন্নতির জন্য প্রতিটি মানুষকে পড়া এবং বই দুটিকেই ভালােবাসতে জানতে হবে।
পড়ার বইগুলিতে সঠিক তথ্য সংযােজিত করতে হবে এবং এটাকেই পুস্তক বিবরণী বলা হয়। দুর্ভাগ্যবশত বাচ্চা এবং প্রাপ্ত বয়স্কদের জন্য আমাদের কাছে কোন পড়ার বিষয়ই থাকে না। ভাষা হল অপর একটি গণ্ডী। আমাদের সাথে বিভিন্ন ধরনের সাহিত্যের বিচ্ছেদ ঘটেছে কারণ আমাদের দেশে ভাষান্তরের সুযোেগ খুবই কম। সুতরাং দেশে বিভিন্ন স্থানে বিভিন্ন ভাষায় কি লেখা আছে আমরা তা জানিই না।
তৃতীয় কারণটি হল গ্রন্থাগার – এটি গ্রন্থাগারের ভূমিকাকে প্রতীয়মান করে তােলে, যার দ্বারা উপরের দুটি বিষয়কে সংযােজিত করা যায়। গ্রন্থাগারগুলিতে উন্নত ধরনের সংগ্রহ থাকা প্রয়ােজন, যাতে যেকোন বই সহজেই পাওয়া যায়।

Post a Comment

0Comments
Post a Comment (0)

#buttons=(Accept !) #days=(20)

Our website uses cookies to enhance your experience. Learn More
Accept !