Wednesday, 8 July 2020

Bengali Essay on "Compulsory Military Training", "আবশ্যিক মিলিটারী প্রশিক্ষণ অনুচ্ছেদ রচনা" for Class 5, 6, 7, 8, 9 & 10

Essay on Compulsory Military Training in Bengali Language: In this article, we are providing আবশ্যিক মিলিটারী প্রশিক্ষণ অনুচ্ছেদ রচনা for students. Bengali Essay on Compulsory Military Training.

Bengali Essay on "Compulsory Military Training", "আবশ্যিক মিলিটারী প্রশিক্ষণ অনুচ্ছেদ রচনা" for Class 5, 6, 7, 8, 9 & 10

প্রতিটি ভারতীয় নাগরিকের জন্য মিলিটারী প্রশিক্ষণকে আবশ্যিক করে তােলার জন্য চিন্তা ভাবনা করা হচ্ছে। পাকিস্থান এবং চীন যেভাবে ভারতকে গ্রাস করবার জন্য উঠে পড়ে লেগেছে, সেই সমস্যার সমাধানের জন্যই এই ধরনের চিন্তা ভাবনা করা হচ্ছে। আমাদের নেতারা বুঝতে পারছেন যে এই দ্বিমুখী আক্রমণের হাত থেকে ভারতকে রক্ষা করার জন্য আধুনিক প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত দৃঢ় সৈন্য বাহিনীর খুবই প্রয়ােজন। সুতরাং সারা দেশ জুড়ে 'Militurise the Nation' – এই স্লোগানই ধ্বনিত হচ্ছে।
সকল মানুষের জন্যই মিলিটারী প্রশিক্ষণ গুরুত্বপূর্ণ এবং সাহায্যকারী। কারণ এর দ্বারা মানুষ নিঃসন্দেহে নিয়মানুবর্তি হতে পারে। এরই সাথে মানুষ পরার্থে সেবা, দান আত্মােৎসর্গ এবং সমস্ত কিছু ত্যাগ করতে শেখে। প্রশিক্ষণের মাধ্যমেই বৈদেশিক আক্রমণের হাত থেকে আমরা নিজেদ্রেকে রক্ষা করতে পারি। মিলিটারী ট্রেনিং-এর মাধ্যমে দৈহিক দিক থেকে সুস্থ সবল এবং মানসিক দিক থেকে তীক্ষ্ণ বুদ্ধির অধিকারী হােতে পারে।
এর সাহায্যে আমাদের শক্তি এবং কর্মদক্ষতা দুইই বৃদ্ধি পায়। প্রকৃত পক্ষে ভারতীয় যুব শ্রেণীর জন্য মিলিটারী প্রশিক্ষণ আবশ্যিক করে তােলা খুবই প্রয়ােজনীয়, এর সাহায্যে শুধুমাত্র যে ভারতের শত্রুদের সাথেই লড়তে সক্ষম হবে তাই না, বরং এর সাহায্যে বিভিন্ন রকম রােগব্যাধির সাথেও লড়তে সক্ষম হবে এবং অর্থনৈতিক, সামাজিক ও স্বাস্থ্য সংক্রান্ত যুদ্ধও লড়তে পারবে। মিলিটারি প্রশিক্ষণের দ্বারা আমাদের নৈতিক মূল্য বৃদ্ধি পাবে।
প্রকৃতপক্ষে মিলিটারী প্রশিক্ষণের মধ্যে দিয়ে প্রচুর সামাজিকতা শেখা যায়। এর সাহায্যে বাধ্যবাধকতা এবং নির্দেশ পালন দুটিই রপ্ত করা যায়। এই প্রশিক্ষণের মাধ্যমে মানুষ মাতৃভূমির জন্য আত্মত্যাগ করতে শেখে এবং তাকে সমস্ত রকম আক্রমণের হাত থেকে রক্ষা করে। এর সাহায্যে মানুষ সেবা প্রদানের শিক্ষাও গ্রহণ করে। একজন সৈনিকের কাছে খাদ্য এবং আরামের থেকেও দায়িত্ব অনেক বেশী গুরুত্বপূর্ণ। সৈবিকরা দেশ এবং তার জনগণকে সেবা প্রদানের জন্য দেশের এক প্রান্ত থেকে অপর প্রান্তে ছুটে যায়।
মিলিটারী প্রশিক্ষণের মাধ্যমে আমরা সাধারণ আচরণও শিখে থাকি। আমাদের মধ্যে সময়ের মূল্য, দল গত দৃঢ়তা, নৈতিকতা, কর্তব্য পালন, কঠোর পরিশ্রম, চারিত্রিক মহানতা এবং সর্বপরি একজন ভালাে মানুষের অভাব আছে। মিলিটারী প্রশিক্ষণের মাধ্যমে আমরা এই সমস্ত কিছু অর্জন করতে পারি।
বৈদেশিক আক্রমণ এবং আপদকালীন সময়ের জন্য মিলিটারী প্রশিক্ষণ খুবই প্রয়ােজনীয়। এই প্রশিক্ষণের সময় বিভিন্ন রকম আগ্নেয় অস্ত্র পরিচালনা করা শেখানাে হয়, যেমন রিভালবার, রাইফেল প্রভৃতি। এর সাহায্যে দেশের সুরক্ষা প্রদান করা সম্ভব।
মিলিটারী প্রশিক্ষণ সম্পূর্ণ করতে প্রচুর সময় লাগে সে বিষয়ে কোন সন্দেহ নেই এবং এটি যথেষ্ট কষ্ট সাপেক্ষ কিন্তু এই নিয়মানুবর্তি মানুষটিকে পেয়ে দেশ যথেষ্ট উপকৃত হয়। এর সাহায্যে মানুষ বুঝতে পারে যে দেশের প্রতি কর্তব্য পালন করাই হল প্রধান উদ্দেশ্য এবং ব্যক্তিগত চাহিদার স্থান তারপর। আমাদের শস্যক্ষেত্র এবং কলকারখানাতেও এর প্রভাবপড়ে। এর দ্বারা আমাদের দেশে কোন রকম দূষণ এবং পক্ষপাত বিস্তার করতে পারবে না। দক্ষতা এবং কঠোর পরিশ্রমের মধ্যে দিয়েই দেশ চালিত হবে।
নিম্নলিখিত বিষয়গুলির সাহায্যে আমরা মিলিটারী প্রশিক্ষণের প্রয়ােজনীয়তা অনুভব করতে পারব। এর সাহায্যে সেই দৃঢ়তা পাওয়া যায় যা দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় ইংল্যান্ডের সৈন্যবাহিনীকে বিধস্ত করার জন্য স্যার চার্চিল প্রদর্শন করতে সক্ষম হয়েছিলেন। নেপােলিয়ান তার অনিমনিয় প্রভাব দেখাতে পেরেছিলেন তার মধ্যে সৈন্যদের মতন নিয়মানুবর্তিতা থাকার জন্য। এর সাহায্যে সেই শক্তি অর্জন করা যার যার সাহায্যে মহারানা প্রতাপ এবং শিবাজী তাঁদের শত্রুদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে সক্ষম হয়েছিলেন। প্রকৃতপক্ষে মিলিটারী প্রশিক্ষণ বিভিন্ন দিক থেকে খুবই গুরুত্বপূর্ণ।
যাইহােক, যদি আমরা ভারতকে মহান দেশ হিসাবে প্রতিষ্ঠা করতে চাই তবে সমস্ত রকম আত্মকেন্দ্রিকতা এবং দূষণ দূর করতে হবে, এটাই হল সেই গুরুত্বপূর্ণ সময় যখন আমরা ভারতের যুব সমাজকে মাতৃভূমির সেবক এবং সৈন্য হিসাবে গড়ে তুলতে পারি। যুদ্ধের সময় এই প্রতিরক্ষা বিহীনিরাই আমাদের সর্বাধিক সেবা প্রদান করে থাকেন।

SHARE THIS

Author:

I am writing to express my concern over the Hindi Language. I have iven my views and thoughts about Hindi Language. Hindivyakran.com contains a large number of hindi litracy articles.

0 comments: