Bengali Essay on "Summer Vacation", "গ্রীষ্মকালীন অবকাশ রচনা" for Class 5, 6, 7, 8, 9 & 10

Admin
0
Essay on Summer Vacation in Bengali Language: In this article, we are providing গ্রীষ্মকালীন অবকাশ রচনা for students. Summer Vacation Essay in Bengali Language.

Bengali Essay on "Summer Vacation", "গ্রীষ্মকালীন অবকাশ রচনা" for Class 5, 6, 7, 8, 9 & 10

গরমের ছুটি পড়ার কিছু দিন আগের থেকেই আমরা পড়াশােনা সম্পর্কে আলােচনা বন্ধ করে দিই এবং প্রত্যেকেই কোথায় ঘুরতে যাওয়া হবে সেই নিয়ে আলােচনা করতে ব্যস্ত হয়ে যাই। কিন্তু একটা ধ্রুব সত্যিকথা হল - ‘দাতা দেয় তাে বিধাতা দেয় না। যেদিন ছুটি পড়েছিল, সেদিনই আমার মা রান্না ঘরে পড়ে যান এবং তার পায়ের গাঁট ভেঙে যায়। তার পায়ে প্লাস্টার করে দেওয়া হয়েছিল এবং তাকে তিন সপ্তাহের জন্য সম্পূর্ণ বিশ্রাম গ্রহণ করতে বলা হয়েছিল। আমি সম্পূর্ণ পরিবারের জন্য চা ও খাবার প্রস্তুত করতাম। আমার বন্ধুরা তার শরীর সম্পর্কে জানার জন্য আমাদের বাড়ীতে আসততা এবং আমি যতটা পারতাম আতিথেয়তা করার চেষ্টা করতাম। আমি মাকে সহচার্য দেওয়ার চেষ্টা করতাম, তাঁকে গল্প বলতাম এবং যতটা পারতাম তাঁকে খুশীতে রাখার চেষ্টা করতাম। আমার মা কুলারের আর্দ্র হাওয়া সহ্য করতে পারেন না, তাই আমি যেভাবে সম্ভব তার ঘাম মােছানাের চেষ্টা করতাম। তাঁর বিছানা করা, তাঁর জন্য খাবার বানানাে এবং কাপড় বদলে দেওয়া আমার জন্য খুব সহজ কাজ ছিল না। এই কাজে কোন পুরুষের সাহায্য নেওয়া ছিল অসম্ভব। তাই আমি খুবই কষ্টের মধ্যে পড়েছিলাম। যাইহােক, বাথরুমে নিয়ে যাওয়ার সময় আমি তাঁর প্লাস্টারের দিকে যতটা সম্ভব নজর দিতাম।
তিন সপ্তাহ এইভাবেই কেটে গেছিল, প্লাস্টার কাটানাের জন্য আমি তাকে নিয়ে হাসপাতালে গেছিলাম। সেখানে রােগীদের লম্বা লাইন ছিল, তাই আমাদের বারান্দায় পাতা কাঠের পেঞ্চে বসেই অপেক্ষা করতে হয়েছিল। হাসপাতালের প্রতিটি রােগীর কাছেই এটা খুবই কষ্টকর সময়। রােগীরা যন্ত্রণায় কাঁদছিল। কেউ কেউ পা টেনে হাঁটলেও কারুর কারুর হাঁটতে খুবই কষ্ট হচ্ছিল। ডাক্তার তাদেরকে আরও কিছুদিন প্লাস্টার রাখার জন্য পরামর্শ দিয়েছিলেন। আমি চাইছিলাম আমার পায়েও প্লাস্টার করে রেখে দেওয়া হােক, এতে আমি বেশ কিছুদিন বিশ্রাম গ্রহণ করার সুযােগ পেতাম।।
আমার বন্ধুরা কাশ্মীর থেকে ঘুরে এসেছিল, সেখানে তারা খুবই মজা করেছিল। সেখানকার আবহাওয়া খুবই মনােরম ছিল এবং তারা পেহেল গাঁও থেকে গ্ল্যাসিয়ার পর্যন্ত ট্রেকিং করেছিল। আমার পাখির মতন উড়ে গিয়ে তাদের সাথে যােগদান করার ইচ্ছা হয়েছিল। সেই সময় আমার এক কাকিমা মুম্বাই থেকে আসেন, আমার মা কেমন আছে তা জানার জন্য। তার সাথে তার ছােট ছেলেও ছিল। সুতরাং তখন আমাকে আমার মা এবং পরিবারের সাথে আমার কাকিমা এবং তার দুষ্টু বাচ্চাকেও দেখা শােনা করতে হয়েছিল।
এইভাবে, আমার মা আমার পরিবার এবং আমাদের আত্মীয়দের দেখা শােনা করেই আমার গরমের ছুটি কেটে গেছিল।

Post a Comment

0Comments
Post a Comment (0)

#buttons=(Accept !) #days=(20)

Our website uses cookies to enhance your experience. Learn More
Accept !