Saturday, 13 June 2020

Bengali Essay on "A Happy Life", "একটা সুখী জীবন রচনা" for Class 5, 6, 7, 8, 9 & 10

Essay on A Happy Life in Bengali Language : In this article, we are providing একটা সুখী জীবন রচনা for students. Bengali Essay on A Happy Life.

Bengali Essay on "A Happy Life", "একটা সুখী জীবন রচনা" for Class 5, 6, 7, 8, 9 & 10

এই বিশ্বের প্রতিটি মানুষই সুখী জীবনের কামনা করে। সুখ ব্যাপারটি মানুষের মস্তিষ্ক প্রসূত। সুখকে সজ্ঞায়িত করা খুবই কঠিন কাজ। অনেক সময় সখ বাহ্যিক আড়ম্বর এবং জাকজমকের উপরেই নির্ভরশীল হয়ে যায়। অনেক সময় এটা শুধুমাত্র স্বাস্থ্যের উপরেই নির্ভর করে। অনেক সময় এটি পরম উৎকর্ষ জিনিসের মালিকানার উপরেই নির্ভর করে।
মানুষ সুখের পিছনে ছুটে বেড়ায়। তাদের কাছে সুখ হল একটি সুন্দর এবং আরামদায়ক স্বপ্ন। মানুষের জীবনযাপনের স্তর ভিন্ন রকমের হয়। সুখ সম্পর্কে প্রত্যেক মানুষের একটা ভিন্ন চিন্তাধারা থাকে। কিন্তু একটা জিনিস খুবই স্পষ্ট যে, প্রতিটি মানুষ তাদের বর্তমান অবস্থা এবং সম্পর্ক নিয়ে অসন্তুষ্ট থাকে। কোন মানুষের জীবনেই বাহ্যিক সম্পদের চাহিদা শেষ হয় না। যে দরিদ্র মানুষটি রাস্তার ধারে বাস করে, তার মনে একটা কুটীরের চাহিদা থাকে, কুটীর পাওয়ার পর তার মনে একটা বাড়ীর চাহিদা জন্মায়। ঘরে মালিক একটা সুন্দর বাংলাের কামনা করে এবং বাংলাের মালিকের মনে থাকে একটা দামী বাড়ীর স্বপ্ন।
কিন্তু এখন প্রশ্ন হল - কিসের মধ্যে মানুষের প্রকৃত আনন্দ এবং প্রবােধ লুকিয়ে আছে? সাধারণত বলা হয়, বাহ্যিক জাকজমক এবং সম্পদের মাধ্যমেই সমস্ত রকম খুশী আসে। একজন সম্পদশালী ব্যক্তি জীবনে সমস্ত রকম আরাম, সুযােগ এবং বিলাসের আনন্দ উপভােগ করতে পারে। কিন্তু তারা প্রকৃতই নিজেদেরকে সুখী বলে মনে করি কি? একজন ধনী ব্যক্তির কাছে লক্ষ টাকা থাকতে পারে, কিন্তু তা সত্ত্বেও সে নিজেকে অসুখী মানুষ বলে মনে করেন কারণ, প্রকৃতপক্ষে সে একজন অসুস্থ মানুষ। অসুস্থ থাকার জন্য সে জীবনের কোন আনন্দই উপভােগ করতে পারে না। সে নিজেকে পৃথিবীর সবথেকে দুর্ভাগ্য মানুষ বলে পরিগণিত করে। এবং যখন সে নিজেকে প্রাচুর্যের পরিপূর্ণতার মধ্যে আবিষ্কার করে, তখন সে আরও কষ্ট ভােগ করে। তখন সে মানসিক ভারসাম্যতা বজায় রাখতে পারে না, এবং তার মন বিষাদে পরিপূর্ণ হয়ে যায়। এর থেকে আমরা সিদ্ধান্ত করতে পারি যে, সম্পদের মাধ্যমে জীবনের সব সুখ পাওয়া যায় না।
এবার একজন দরিদ্র মানুষের জীবনের দিকে আলােকপাত করা যাক, একটা প্রকৃত সত্য বিষয় হল দরিদ্রতা এবং সুখ কখনই একস্থানে বাস করতে পারে না। কিন্তু এমন অনেক ঘটনা আছে যখন আমরা দরিদ্র মানুষদের মধ্যেও খুশীর ছাপ দেখতে পারি। দ্রুতগতিতে সময়ের এই পরিবর্তন তাদের মস্তিষ্ককে দূষিত করতে পারে না। তারা ভারসাম্যতা এবং সুখ বজায় রেখেই বসবাস করে। প্রাচুর্যের রােগ তাদের অনুভূতিকে গ্রাস করতে পারে না এবং তারা ওয়ার্ডস ওয়ার্থের সেই অমর পংক্তিকেই বিশ্বাস করে –
"Be content with what you have Little be it or much..."
কিছু মানুষ প্রকৃতই সুখে থাকে। তাদের মানসিকতা সর্বদাই শান্তিপূর্ণ। থাকে। তা না হলে, মানুষের চাহিদার কোন শেষ থাকত না। মানুষের চাহিদা অসীম, এবং তারা তাদের সৌভাগ্যকে আকাশ ছোঁয়া করে তুলতে চায়। একজন লক্ষপতি কোটিপতি হতে চায় এবং এই উপরে ওঠার স্বপ্নের কোনও সীমা নেই।
বেশীর ভাগ সময়, এই ধরনের মানসিকতার লােকেরা প্রচুর কষ্ট লােগ করেন। মানুষ সর্বদাই তারকাছে যা থাকে না, তার প্রয়াসী হয়। সুতরাং তাদের চাহিদা বৃদ্ধি পেতে থাকে এবং তাদের উচ্চাকাঙ্খ তাদেরকে চালনা করে, কিন্তু যদি তারা সফল না হয় তবে এই উচ্চাকাঙ্খই মানসিক যন্ত্রণার সৃষ্টি করে। অতিরিক্ত জিনিসের পাগলামী এবং এর অপূর্ণতা নিরানন্দ ও হতাশার জন্ম দেয়। এই পৃথিবী সত্যিই কষ্টকর স্থান এবং বিখ্যাত কবি শেলীর উক্তি দ্বারা তা স্পষ্ট ভাবে প্রতীয়মান হয় ?
"We look before and after And pine for what is not."
মানসিকতার মধ্যে দিয়েই একটা সুখী জীবনের জন্ম হয়। সুখের চাবি খোঁজার ক্ষেত্রে স্বাস্থ্য একটা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। একজন স্বাস্থ্যবান মানুষ সকালে উঠে বাগানে ঘুরতে পারে এবং সে সতেজ বাতাস ও ফুলের সুবাসকে উপভােগ করতে পারে। একজন দরিদ্র অথচ স্বাস্থ্যবান মানুষ খেলাধুলা করতে পারে এবং সে বিনামূল্যে বা কমদামেই নিজের জন্য আমােদ-প্রমােদ ক্রয় করতে পারে। | সুতরাং আমরা সিদ্ধান্ত করতে পারি যে, সম্পদের প্রাচুর্যই সুখের জন্ম দেয় না এর চাবিকাঠি থাকে অন্য কোথাও। একজন ধনী মানুষ সর্বদাই উদ্বিগ্ন থাকে কারণ যেকোন সময় তার অর্থ চোর বা ডাক্তারের কাছে চলে যেতে পারে। যে মানুষ সর্বদাই সঠিক কাজ করেন, কখনই কারুর মনে দুঃখ দেয় না এবং ভগবানের প্রতি বিশ্বাস রাখে, সেই প্রকৃত সুখের অধিকারী। হতে পারে। কোন কাজ করার ইচ্ছা বা লক্ষ্য থাকা খুবই ভালাে বিষয়। ভালাে কাজও সুখের জন্ম দেয়। সফলতাও সুখের অন্যতম চাবি। শেক্সপীয়ার। প্রকৃতই বলেছিলেন –
"Nothing is good and bad but thinking makes it so."
একজন সুখী মানুষের কাছে সমস্ত কিছুই মনােরম বলে মনে হয় এবং অসুস্থ মানসিকতায় সব কিছুই বিষন্ন লাগে।

SHARE THIS

Author:

I am writing to express my concern over the Hindi Language. I have iven my views and thoughts about Hindi Language. Hindivyakran.com contains a large number of hindi litracy articles.

0 comments: